নারীদের পদোন্নতি দিতে বিছানায় ডাকেন ইমরান

স্পোর্টস ডেস্কঃ

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ইমরান খানের দ্বিতীয় স্ত্রী রেহাম নতুন করে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, পাকিস্তান তেহরিক ই ইনসাফের (পিটিআই) প্রধান হিসেবে ইমরান তার দলের নারী সদস্যদের উঁচু পদে পদোন্নতি দেন বিশেষ এক সুবিধা নিয়ে।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারেও রেহাম অভিযোগ করেছেন, ইমরান প্রতিষ্ঠিত পিটিআই দলে নারীরা তখনই উঁচু পদ পান, যখন তারা দলের প্রধানের সঙ্গে বিছানায় যেতে রাজি থাকেন। কেউ বড় পদ চাইলে ইমরান নাকি সরাসরি তাকে জানিয়ে দেন তাহলে তার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করতে হবে।

রেহামের বরাতে টাইমস অব ইন্ডিয়া লিখেছে, নিজের আগামী বইতে এ বিষয়ে নাকি তিনি বিস্তারিত লিখেছেন। রেহাম আরো বলেন, ইমরান প্রধানমন্ত্রী হলে পাকিস্তানের পক্ষে তা অত্যন্ত খারাপ হবে।

উল্লেখ্য, এবছরের ২৫ জুলাই পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন। তার আগে এ সব তথ্য ভোটারদের মধ্যে পৌঁছে গেলে ইমরানের পক্ষে তা অত্যন্ত খারাপ হবে। কয়েকজন অবশ্য প্রকাশের আগেই বইটি নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছেন। অনেকের দাবি, ইমরান খানকে নির্বাচনে হারাতেই রেহাম এসব করছেন।

এইদিকে রেহামকে তৎক্ষণাৎ আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরাম। এক সময়ের সেরা এই পেসারের অভিযোগ, এই বইতে রেহাম নিজস্ব যাবতীয় ব্যক্তিগত কথা লিখে দিয়েছেন,তখনাইমরানের সম্মানহানি হয়েছে। এছাড়া রেহামকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন তার সাবেক স্বামী এজাজ রহমান, ব্রিটিশ ব্যবসায়ী সৈয়দ জুলফিকার বুখারি ও তেহরিক ই ইনসাফ দলের মিডিয়া কো অর্ডিনেটর অনিলা খাজা।

উল্লেখ্য, রেহাম ইমরানের দ্বিতীয় স্ত্রী। ২০১৫ সালে বিয়ের মাত্র ১৫ মাস পর তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এর আগে জেমিমা গোল্ড স্মিথের সঙ্গে ১৯৯৫ সালে বিয়ে হয় ইমরানের। ৯ বছর সংসারের পর এই ব্রিটিশ টেলিভিশন ব্যক্তিত্বের সঙ্গে সম্পর্ক বিচ্ছেদ করেন তিনি। চলতি বছরের শুরুতে ৬৬ বছর বয়সী ইমরান ফের বিয়ে করেন বুশরা মানেকা নামের এক নারীর সঙ্গে। প্রায় চার মাসের মাথায় ফের বিচ্ছেদ হয় তাদের।

কমেন্টস

কমেন্টস