তুষার প্রশ্নে যা বললেন কোচ

স্পোর্টস ডেস্কঃ 

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সঙ্গে ব্রিটিশ কোচ স্টিভ রোডসের পথচলার শুরুটা হয়েছিল দুঃস্বপ্নের মতো। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের টেস্ট সিরিজটাকে ভুলে যেতে পারলেই যেন ভালো! অবশ্য ওই সফরের ওয়ানডে সিরিজ থেকে শুরু করে দেশের মাটিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ পর্যন্ত সময়টা হয়তো সেই কষ্টের খানিকটা ভুলিয়েই দিয়েছিল রোডসকে।

কিন্তু প্রায় চার মাসের বিরতি দিয়ে আবার টেস্টে ফিরেই সেই একই হতাশার মুখোমুখি হতে হলো বাংলাদেশের কোচকে। সেটিকে অবশ্য সহজভাবেই নিয়েছেন রোডস। কাল সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘সবারই তো খারাপ দিন যায়…প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে আমাদের যেমন গেছে।’ সিলেট টেস্টে হারের পরদিন যখন দলের অর্ধেক ক্রিকেটার ঢাকায় ফিরে এসেছেন, তখন সিলেটে তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে হালকা অনুশীলনে ব্যস্ত রোডস। হয়তো মিরপুরে সিরিজে ফেরার ব্যাপারে তাঁর আত্মবিশ্বাসের কথা বলেছেন সেখানেই, ‘এই ছেলেরা (ক্রিকেটাররা) ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। বাংলাদেশের ড্রেসিংরুমের এই ব্যাপারটা আমি খুব ভালোবাসি। ওরা আমাকে বারবার চমকে দেয়, বারবার ঘুরে দাঁড়ায়। ওয়ানডেতে আমরা হয়তো কয়েকটা উইকেট হারিয়ে ফেললাম, হঠাৎই একটা বড় জুটি গড়ে ফেলল। ওরা পরের টেস্টটাতেও ঘুরে দাঁড়াবে, ওরা প্রত্যয়ী।’

সেই প্রত্যয়ী দলটিকে নিয়ে মিরপুরের জন্য বিশেষ কোনো পরিকল্পনা আছে নাকি রোডসের? সেটি গোপনই রাখতে চান বলে জানিয়ে দিলেন। তবে এটুকু বললেন, প্রথম টেস্টে যেসব পরিকল্পনা কাজে লাগেনি, সেগুলোতে নিশ্চিত বদল আনবেন। তবে সেই বদলে যে দলের খেলোয়াড়দের পরিবর্তন নয়, সেটিই বোঝাতে চাইলেন কোচ। ঘরোয়া লিগে রানবন্যা বইয়ে দেওয়া তুষার ইমরানের চেয়ে টেস্টে সুযোগ পাওয়া ব্যাটসম্যানদেরই এগিয়ে রাখলেন রোডস, ‘যারা এখন জাতীয় দলে খেলছে, তারাও তো প্রচুর রান করেছে জাতীয় লিগে। যার নাম বলা হচ্ছে (তুষার ইমরান), তার চেয়েও বেশি রান করেছে ওরা। শান্ত (নাজমুল হোসেন) ১৮০ করেছে, (লিটন) দাস ২০০ করেছে, মুমিনুল ১০০ করেছে, আরিফুলও ডাবল সেঞ্চুরি করেছে। জাতীয় লিগে অনেক রান হচ্ছে। তবে এই মুহূর্তে দলে যারা খেলছে, ওরা ভালো খেলোয়াড়। আমার মনে হয়, সেরা দলটিকেই পেয়েছি আমরা। এই দল নিয়েই আমরা ঘুরে দাঁড়াব।’

কমেন্টস

কমেন্টস