টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের ছন্নছাড়া ব্যাটিং, লড়ছেন মুশফিক

স্পোর্টস ডেস্কঃ

জিতলেই ইউনিমনি এশিয়া কাপ ২০১৮’র ফাইনালে চলে যাবে দল, এমন ম্যাচে শুরুতেই ব্যাটিংয়ে ধাক্কা খেলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। শান্ত’র জায়গায় সুযোগ পেয়ে শূন্য রানেই ফিরেছেন ওপেনার সৌম্য সরকার, দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিয়ে সাজঘরে মুমিনুলও; এমতাবস্থায় দলের অপর ওপেনার লিটন কুমার দাসের কাছে দায়িত্বশীল একটি ইনিংস প্রত্যাশা করছিল বাংলাদেশ দল। কিন্তু হতাশ করেছেন তিনিও।

ইনিংসের মাত্র ৫ ওভারের মধ্যে টপঅর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে কঠিন চাপে পড়ে গিয়েছে বাংলাদেশ। পাকিস্তানের বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে আগেই একাদশ থেকে ছিটকে গেছেন সাকিব আল হাসান, তার উপরে টপঅর্ডারদের ব্যর্থতায় এখন সকল দায়িত্ব এসে বর্তেছে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ঘাড়ে।

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই দারুণ ফ্লিক শটে দুই রান নিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলেন লিটন কুমার দাস। কিন্তু সেটি আর ধরে রাখতে পারেননি সৌম্য। শাহীন শাহ আফ্রিদির করা দ্বিতীয় ওভারে কোনো রান নিতে পারেননি লিটন, মেইডেন পান শাহীন।

জুনায়েদ খানের করা তৃতীয় ওভারের পঞ্চম বলে বড় শট খেলতে যান সৌম্য। কিন্তু গড়বড় করেন টাইমিংয়ে, বল উঠে যায় আকাশে। স্কয়ার লেগে দাঁড়িয়ে লোপ্পা ক্যাচ নেন ফাখর জামান। প্রমোশন পেয়ে তিন নম্বরে ব্যাট করতে আসেন মুমিনুল হক।

পরের ওভারের চতুর্থ বলে শাহীন শাহ আফ্রিদিকে দুর্দান্ত এক ফ্লিক শটে ডিপ মিড উইকেট ও মিড অনের মাঝ দিয়ে ইনিংসের প্রথম বাউন্ডারি হাঁকান মুমিনুল। কিন্তু পরের বলেই ঘুরে দাঁড়ান শাহীন। অসাধারণ এক ডেলিভারিতে সরাসরি বোল্ড করেন মুমিনুলকে। ৪ বলে ৫ রান করে ফিরে যান তিনি।

পরের ওভারে সৌম্য-মুমিনুলের পথ অনুসরণ করেন লিটনও। জুনায়েদ খানের মিড স্টাম্পে পিচ করা বল নিখুঁত আউটসুইংয়ে ভেঙে দেয় লিটন দাসের অফস্টাম্প। ১৬ বল খেলে মাত্র ৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন লিটন।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৯ ওভার শেষে বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ২৬ রান। মোহাম্মদ মিঠুনকে সাথে নিয়ে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেয়ার কাজে নেমেছেন মুশফিকুর রহিম।

কমেন্টস

কমেন্টস