সৌদি নারীর গাড়ি আগুনে জ্বালিয়ে দিল দুর্বৃত্তরা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ 

সৌদি আরব নারীদের গাড়ি চালানো উপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার কয়েক দিনের মধ্যেই এক নারীর গাড়ি জ্বালিয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ব্যাপারে গত মঙ্গলবার (৩ জুলাই) মক্কা পুলিশ বলেছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা বিষয়টির তদন্ত করছেন।

মক্কার স্থানীয় এক প্রতিষ্ঠানে কোষাধ্যক্ষ হিসেবে চাকরি করেন সালমা আল-শেরিফ (৩১)। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, কিছু পুরুষ তাঁর গাড়িতে ইচ্ছাকৃতভাবে আগুন লাগিয়েছে।

এ বিষয়ে সরকারপন্থী পত্রিকা ওকাজকে শেরিফ বলেন, গাড়ি চালানোর অনুমতির পর থেকে তিনি প্রতিবেশীদের কাছে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘আমার বেতন চার হাজার রিয়াল, যার অর্ধেকই গাড়িচালকের পেছনে খরচ যায়। কিন্তু গাড়ি চালানোর প্রথম দিন থেকেই তিনি পুরুষের কাছে হয়রানি শিকার হচ্ছেন।’

এদিকে মঙ্গলবার সকালে সালমার গাড়ির আগুন নেভানোর পর পুলিশ অপরাধীদের ধরার জন্য তৎপর হয়। মক্কার পুলিশ বিভাগ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে এবং অপরাধীদের ধরার চেষ্টা চালাচ্ছে।

জেদ্দার একজন আইনজীবী নায়েফ আল মানসি টুইটে লেখেন, ‘গাড়ির মালিক একজন নারী, এ কারণে যদি সেটি পোড়ানো হয় তাহলে এটা একটা সন্ত্রাসী হামলা হিসেবে বিবেচনা করে এর জন্য শাস্তি দেয়া উচিত।

টুইটারে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, জ্বলন্ত গাড়ির পাশে দাড়িয়ে ওই নারী দুর্বৃত্তদের উদ্দেশ্য করে বলছেন, ‘আল্লাহ তাদের বিহিত করবেন।’  অনেকেই তাঁর পুড়ে যাওয়া গাড়ির ছবি পোস্ট করছেন এবং এটা ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’ বলে নিন্দা জানিয়েছেন। সূত্র : রয়টার্স ।

কমেন্টস

কমেন্টস