আদিত্যকে বিয়ে করার কারন দর্শালেন রানী

বিনোদন ডেস্কঃ

বলিউডের অভিনেত্রীদের বিয়ে মানেই ক্যারিয়ার শেষ। আর বাচ্চা? বাচ্চা হওয়া মানে ডুবন্ত ক্যারিয়ার উদয় হওয়ার সম্ভবনা নেই। এমন কিছু উক্তি বস প্রচলিত আছে। কিন্তু এমন সব কথাকে উড়িয়ে দিয়েছেন বলিউডের মা হওয়া অনেক অভিনেত্রী। তারা লাইম লাইটকে বৃদ্ধা আঙ্গুল  দিখিয়ে দিয়েছেন বিয়ে বা বাচ্চা হলেও একজন অভিনেত্রী টিকে থাকতে পারেন। তাঁদের মধ্যে অন্যতম নারী মুখার্জি। যে বিয়ে ও সন্তান হওয়ার পরেও তার ইমেজে বিন্দু পরিমাণে ভাটা পরেনি।

মেয়ে আদিরার জন্মের পর চার বছরের ব্রেক নিয়েছিলেন রানি। সম্প্রতি কামব্যাক করেছেন সিদ্ধার্থ পি মলহোত্র পরিচালিত ‘হিচকী’ দিয়ে। সে ছবিতে রানির অভিনয় প্রশংসা পেয়েছে বিভিন্ন মহলে। ফলে বিয়ে, সন্তান মানেই যে কেরিয়ার শেষ নয়, তা তিনি প্রমাণ করে দিতে পেরেছেন বলে মনে করছেন অভিনেত্রী স্বয়ং।

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রানি জানিয়েছেন, তিনি যখন আদিত্য চোপড়াকে বিয়ে করেন, অনেকেই ভেবেছিলেন বড়পর্দায় আর তাঁকে দেখা যাবে না। কিন্তু সে সব সমালোচনার উত্তর তিনি দিয়েছিলেন বড়পর্দাতেই।  ২০১৪-য় ‘মর্দানি’ ছিল বিয়ের পর রানির প্রথম ছবি। তার পর মেয়ে আদিরার জন্ম। দীর্ঘ বিরতি নিয়ে কামব্যাক করে সাফল্য পেয়েছেন নায়িকা।

রানির কথায়, ‘‘হিচকীর সাকসেস আমার কাছে বিরাট ব্যাপার। কারণ অভিনেত্রীরা মা হয়ে গেলে তাঁদের বাতিল করে দেওয়া হয়। ভাবা হয়, দর্শক আর তাঁদের দেখতে চান না। কিন্তু আমাকে দর্শকরা বলেছেন, আপনি মা হয়েছেন তাতে আমাদের কিছুই যায় আসে না। আপনাকে আমরা বড়পর্দায় দেখতে চাই। কারণ প্রফেশনালি আমি তো একই রয়েছি।’’

রানি জানিয়েছেন, কী ভাবে আদিত্যর প্রেমে পড়েছিলেন। তার পর কেনই বা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। রানি বলেন, ‘‘প্রেমে পড়া যায়, কিন্তু শ্রদ্ধা করার মতো মানুষ খুব একটা নেই। লিডার হিসেবে আদি অসাধারণ। ওর নিজের লোকেদের জন্য সব কিছু করতে পারে। এই গুণ এই ইন্ডাস্ট্রিতে সকলের থাকে না।’’

কমেন্টস

কমেন্টস