বশেমুরবিপ্রবি’র শিক্ষার্থী-গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত অর্ধশত

ডেইলি মিরর ২৪ ডেস্কঃ

ফুটবল  খেলাকে কেন্দ্র করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয় এলাকাবাসীর সংঘর্ষে অন্তত ৫০  জন আহত হয়েছেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা কয়েকটি দোকানপাট ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। 

গতকাল বুধবার (৪ জুলাই) সন্ধ্যা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত থেমে থেমে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও আশপাশের এলাকায় এসব ঘটনা ঘটে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মাঠে প্রায় ১৫ জন বহিরাগত ফুটবল খেলা শেষে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীদের ইভটিজিং করেন। উপস্থিত অন্য শিক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদ করলে তাদের গায়ে হাত তোলেন বহিরাগতরা। এ খবর শুনে শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে এবং ক্যাম্পাসে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও গোপালগঞ্জ-পিরোজপুর সড়ক অবেরোধ করে রাখেন।

এক পর্যায়ে তারা মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাস সংলগ্ন সোবাহান সড়কের দিকে গেলে এলাকাবাসীর সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে। তখন এলাকাবাসী মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে ক্যাম্পাসে আক্রমণ চালায়। তারা একটি মোটরসাইকেল ও ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থাপনাসহ গাছপালায় আগুন লাগিয়ে দেয়।

এ ঘটনায় প্রায় ৫০ জন আহত হন।আহত মধ্যে ১৫ শিক্ষার্থীকে গোপালগঞ্জ  জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এরা হলেন- সমাজবিজ্ঞান চতুর্থ বর্ষের ছাত্র নিউটন মজুমদার (২৩),  লোকপ্রশাসন প্রথম বর্ষের ছাত্র তুহিন (২০), মার্কেটিং ৩য় বর্ষের ছাত্র মুন (২২), মুরাদ (২২), পদার্থবিজ্ঞান ১ম বর্ষের ছাত্র আসিফ (২০), সুব্রত (২০),  এআইএস ২য় বর্ষের ছাত্র তিতাস (২১), ম্যানেজমেন্ট মাস্টার্সের ছাত্র অরূপ (২৪), সমাজবিজ্ঞান ২য় বর্ষের ছাত্র মিহিন (২১), নাজমুল ইসলাম পাভেল (২১), নাইম হোসেন (২১), আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ৩য় বর্ষের ছাত্র মহসিন (২২), মিজান (২২), সিএসই ২য় বর্ষের সিহাব ছাত্র (২১) এবং আমিনুর।

এ বিষয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কমেন্টস

কমেন্টস