মাদক ব্যবসায়ীর হামলায় ফুলবাড়ীতে ৩ বিজিবি আহত

ডেইলি মিরর ২৪ ডেস্কঃ 

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার অনন্তপুর সীমান্তে বিজিবি ও মাদক চোরাকারবারীদের মধ্যে সংঘর্ষে তিন বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় এক শিশুসহ চারজনকে আটক করেছে বিজিবি। সোমবার দিবাগত রাত অনুমান ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে সীমান্তবাসীদের মধ্যে গ্রেফতার আতংক ও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার অনন্তপুর সীমান্তে লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি অনন্তপুর সীমান্ত ফাঁড়ির হাবিলদার মো. আবদুস ছোবহানের নেতৃত্বে একদল বিজিবি সদস্য স্থানীয় বেড়াকুটি বাজারের পশ্চিমে টহলে থাকাবস্থায় ওই এলাকার মৃত আওরঙ্গজেবের ছেলে মো. এমদাদুল হককে (২৫) গভীর রাতে কেন তিনি সীমান্ত এলাকায় ঘোরাঘুরি করছেন জানতে চাইলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

এসময় ওই এলাকার মৃত আনছার আলীর ছেলে আমিনুলের সহযোগী মাদক ব্যবসায়ী অনন্তপুর ভেল্লিরতলের মজিবর রহমানের ছেলে মো. মোফাজ্জল হোসেন মোফা ঘটনাস্থলে এসেই চিৎকার শুরু করে। তার চিৎকারে স্থানীয় সশস্ত্র ৫০-৬০ জন লোক এসে টহলরত বিজিবি সদস্যদের উপর হামলা চালায়।

হামলায় হাবিলদার আবদুস ছোবহান, সিপাহি মাইদুল হক ও সিপাহি শাহীনের ওপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় হামলাকারীরা। হামলায় হাবিলদার আবদুস ছোবহান ও সিপাহি মাইদুল হকের মাথা ফেটে যায়। এছাড়া সিপাহি শাহিনের হাত জখম হয়।

সশস্ত্র হামলাকারীরা বিজিবির ব্যবহৃত রাইফেলের ট্রেগারগার্ড কেড়ে নেয়। এক পর্যায়ে আত্মরক্ষার্থে বিজিবির হাবিলদার আবদুস ছোবহান এক রাউন্ড ফাঁকা গুলি নিক্ষেপ করেন। হামলাকারীরা কেউ আহত হয়েছে কিনা জানা যায়নি। আহত বিজিবির সদস্যদের ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়ন ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার মেজর জিয়া মো. মাসুম বিন কুদ্দুস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। মঙ্গলবার সকালে পশ্চিম রামখানা গ্রামের মৃত কালা বাচ্চার ছেলে আইয়ুব আলীর বাড়ি থেকে বিজিবির কাছ থেকে কেড়ে নেয়া রাইফেলের ট্রেগারগার্ড উদ্ধার করা হয়।

কমেন্টস

কমেন্টস