আরেক দফা বাড়ছে গ্যাসের দাম!

জ্বালানির ঘাটতি মোকাবেলায় আগামী এপ্রিল থেকে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানি শুরু হচ্ছে। আর এই আমদানী বাড়াবে দেশে গ্যাসের দাম। শুরুতে প্রতিদিন ৫০ কোটি ঘনফুট গ্যাস এলএনজি থেকে পাওয়া যাবে। তাতে জ্বালানির ঘাটতি কমলেও গ্যাসের দাম বাড়বে।

জ্বালানি সচিব নাজিমউদ্দিন এক সাক্ষাৎকারে বলেন, এলএনজি এলে গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিকল্প নেই। এখনই প্রতি ইউনিট (এক হাজার ঘনফুট) গ্যাসের উৎপাদন ব্যয় নয় টাকার বেশি। ৫০ কোটি ঘনফুট এলএনজি আসতে শুরু করলে ব্যয় পড়বে প্রায় ১৪ টাকা। পরে আরও এলএনজি এলে দাম আরও বাড়বে। এনার্জি রেগুলেটরি কমিটির কাছে এ ব্যাপারে প্রস্তাব পাঠানো হচ্ছে।

এলএনজি আমদানি শুরুর পর গ্যাসের দাম সবচেয়ে বেশি বাড়বে।শিল্পে, যা প্রতি ঘনমিটারের বর্তমান দাম ৭ টাকা ৭৬ পয়সার স্থলে ১৪ টাকা ৯০ পয়সা হতে পারে। আর আবাসিক খাতে এক চুলার গ্রাহকের মাসিক বিল হবে ৭৫০ থেকে বেড়ে প্রায় ১ হাজার টাকা, আর দুই চুলার গ্রাহকের বিল ৮০০ থেকে বেড়ে ১ হাজার ৫০ টাকা হতে পারে। তবে এই খাতে দাম বাড়ার সম্ভাবনা কম।

তবে সরকার বলছে, বেশি দামের গ্যাসের বিকল্প হচ্ছে ‘নো গ্যাস’। কেউ চাইলে এর যেকোনো একটি বেছে নিতে পারেন। সরকারের হিসাবে প্রতিদিন ১০০ কোটি ঘনফুট গ্যাসের সরবরাহ বৃদ্ধি পেলে শিল্প, বিদ্যুৎ, সার ও অন্যান্য উৎপাদন খাতে এবং বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান চাহিদা অনুযায়ী গ্যাসের সরবরাহ পাবে। এতে মোট জাতীয় উৎপাদনে ২ লাখ ৭৬ হাজার কোটি টাকা যুক্ত হবে, কর্মসংস্থান হবে প্রায় ১০ লাখ।

কমেন্টস

কমেন্টস