বিএনপি’র সমাবেশের অনুমতি নিয়ে ভিন্ন চেহারায় ডিএমপি ও সরকার

ডেইলি মিরর ২৪ ডেস্কঃ

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর জনসভার নতুন তারিখ ঘোষণা করে দলটি। তবে এই জনসভার ব্যাপারে ডিএমপির পক্ষ থেকে কোনো নিষেধাজ্ঞা না থাকলেও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান বা দলটির পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জনসভা করার অনুমতি দিচ্ছে না ডিএমপি।

এর আগে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী বলেছিলেন, আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর শনিবার বেলা ২টায় রাজধানীর নয়াপল্টন অথবা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা অনুষ্ঠিত হবে। বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীকে জনসভা সফল করার জন্য আহ্বান জানানো হলো।

তবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ভারপ্রাপ্ত কমিশনার শাহাবুদ্দিন কোরেশী জানিয়েছেন, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় দুটি স্থানে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হচ্ছে না। ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট না পেয়ে আমরা কাউকেই বাইরে সমাবেশের অনুমতি দেব না।

‘তবে ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউট অব বাংলাদেশ (আইইবি) অডিটোরিয়ামে সমাবেশ করতে পুলিশের পক্ষ থেকে বিএনপিকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে। সেখানে সমাবেশ হলে পুলিশ পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেবে’ বলে জানান তিনি।

এদিকে, সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে বলা হয়েছে, নিবন্ধিত কোনো রাজনৈতিক দল যদি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি চায় তাহলে যেন ওই রাজনৈতিক দলকেও অনুমতি দেয়া হয়। তাহলে কেন বিএনপিকে সেখানে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হচ্ছে না।

এ বিষয়ে পুলিশ কর্মকর্তা শাহাবুদ্দিন কোরেশী জানান, অনুমতির বিষয়টি কেস টু কেস ভেরি করে। গোয়েন্দা প্রতিবেদন পর্যালোচনা, ট্রাফিক পরিস্থিতি বিবেচনা, ওয়ার্কিং ডে, তারিখ, সময় ইত্যাদি বিবেচনায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, কোন ভেন্যু ব্যবহারের অনুমতি দেয়া হবে আর কোনটিতে অনুমতি দেয়া হবে না।

ভারপ্রাপ্ত কমিশনার আরও বলেন, অতীতে অনেক রাজনৈতিক দলকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ব্যবহারের অনুমতি দেয়া হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় ভবিষ্যতে বিএনপিকেও অনুমতি দেয়া হবে।

এর আগে গত ১ সেপ্টেম্বর দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে নয়াপল্টনে বিশাল সমাবেশ করেছে বিএনপি।

কমেন্টস

কমেন্টস